শিশুর নাক দিয়ে পানি ঝরা

image-1645

শিশুর নাক দিয়ে যখন প্রায়ই পানি ঝরে, তখন বিষয়টি নিয়ে মা-বাবা চিন্তিত না হয়ে আর পারেন না। নাকের এ পানি সরাসরি পানি না বলে শ্লেষ্মা বলাই ভালো। সাধারণত ৪ থেকে ৮ বছর বয়সী শিশুর নাকে শ্লেষ্মা ঝরার সমস্যা দেখা যায়। এ বয়সে ঘন ঘন ঊর্ধ্বশ্বাসনালির প্রদাহে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি শিশুর নাক দিয়ে শ্লেষ্মা ঝরার কারণ বলে মনে করা হয়। সাধারণত অ্যালার্জি সমস্যায় আক্রান্ত শিশুর নাক দিয়ে শ্লেষ্মা ঝরার সমস্যা দেখা যায়। তবে দরিদ্র পরিবারের অপুষ্টিতে ভোগা শিশুরা এ ধরনের সমস্যায় বেশি ভোগে। কারণ এ ধরনের শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকে। এ ছাড়া আশপাশে ধূমপান করার ফলে অর্থাৎ পরোক্ষ ধূমপানের কারণেও অনেক শিশু নাকের শ্লেষ্মা ঝরা সমস্যায় ভুগে থাকে।

রোগের কারণ : নাক দিয়ে পানি বা শ্লেষ্মা ঝরার অন্যতম কারণগুলো হচ্ছে ভাইরাসজনিত নাকের ইনফেকশন, অ্যালার্জিজনিত নাক ও সাইনাসের প্রদাহ, সাইনোসাইটিস, শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকা, নাকের আঘাত, নাকের মধ্যবর্তী বাঁকা দেয়াল, নাসারন্ধ্রের পেছনের ছিদ্র সংকীর্ণ কিংবা বন্ধ থাকা, এডিনয়েড বেড়ে যাওয়া, টনসিলের সমস্যা, নাকের গহ্বরে কোনো বস্তু আটকে থাকা, নাকের ঝিল্লিস্থ সিলিয়ার অস্বাভাবিক গতিময়তা, অস্বাভাবিক শ্লেষ্মা, ঝিল্লিস্থ গ্রন্থির অস্বাভাবিকতা ইত্যাদি।

শ্লেষ্মা ঝরা দোষের কিছু নয় : অনবরত কিংবা প্রায়ই নাকের পানি বা শ্লেষ্মা ঝরা একটি সমস্যা হলেও নাকের ঝিল্লির এ নিঃসরণের রয়েছে প্রতিরোধক ক্ষমতা। নাকের কার্যক্ষমতা বজায় রাখতে এবং বাহ্যিক প্রতিকূল পরিবেশ থেকে নাক রক্ষা করতে ভূমিকা রাখে এ শ্লেষ্মা। সাধারণত এ শ্লেষ্মা দেখতে পানির মতো কিংবা সাদাটে হয়ে থাকে। রঙের কোনো পরিবর্তন হলে বুঝতে হবে নাকে কোনো ইনফেকশন হয়েছে। সাধারণভাবে হলুদ ও সবুজাভ শ্লেষ্মা সংক্রমিত শ্লেষ্মা হিসেবে গণ্য করা হলেও অনেক সময় অধিক সংখ্যক ইয়োসিনোফিল নামক শ্বেতকণিকার উপস্থিতিতেও রঙ হলুদাভ কিংবা হালকা সবুজাভ হতে পারে।

যখন চিকিৎসা প্রয়োজন : ঘন ঘন নাকের ইনফেকশন এবং সঙ্গে সবুজ রঙের শ্লেষ্মা নাকে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ নির্দেশ করে। এ ছাড়া বারবার ইনফেকশনের কারণে নাক দিয়ে রক্ত ঝরতে পারে, নাক ব্যথা করতে পারে, হাঁচি হতে পারে, নাক দিয়ে দুর্গন্ধ নির্গত হতে পারে। এ ধরনের সমস্যা মাসের পর মাস চলতে থাকলে চিকিৎসা নেওয়া প্রয়োজন। এ সমস্যার জন্য দ্রুত কোনো ভালো হোমিওপ্যাথ ডাক্তারের পরার্মশ নিন।

 

প্রভাষক.ডাঃ এস.জামান পলাশ
জামান হোমিও হল
01711-943435 //01670908547
চাঁদপুর হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল
ওয়েব সাইট –www.zamanhomeo.com
ব্লগ–http://zamanhomeo.com/blog

( প্রতি মুহুর্তের চিকিৎসা বিষয়ক খবর গুলো নিয়মিত পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিন ) https://www.facebook.com/ZamanHomeoHall

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *