ইলুমিনাতি থেকে সাবধান

ইলুমিনাতি থেকে সাবধান হৌন! জামা-কাপড়, জায়নামাজ, বাচ্চাদের খেলনা এবং পরিবারের বিভিন্ন আসবাব পত্র কেনার সময় ইলুমিনাতির লোগো, সিম্বল থেকে দূরে থাকুন। এই সিম্বল ব্যবহার করে শুধুমাত্র দজ্জাল এর অনুসারীরা। বিভিন্ন গুপ্ত সংগঠন বর্তমানে শয়তানের উপাসনা, হিউম্যান সেক্রিফাইজ অর্থাৎ নর বলি দিয়ে দাজ্জালের জন্য নতুন পৃথিবী তৈরি করার চেস্টা করছে। যেখানে থাকবেনা কোন ধর্ম। থাকবে শুধু দাজ্জালের ধর্ম। তারা বিভিন্ন কায়দায় সুনিপুণ ভাবে দাজ্জালের এসব সিম্বল আমাদের মস্তিস্কে ঢুকিয়ে দিতে চায়। যাতে সকল মুসলমান সাভাবিক ভাবেই দাজ্জালের আগমন ঘটার সাথে সাথেই দাজ্জালকে মুসলমানরা তাদের মাসিহি হিসেবে গ্রহন করতে পারে। আমাদের মুসলমানদের উচিত এই ধরনের চিত্র খচিত সকল কিছু থেকে বিরত থাকা। বিশেষ করে গান-বাজনা ও টিভি নিডিয়ার ফালতু সিরিয়াল, সিনেমা, নাটক থেকে দুরে থাকা। এসবের মাধ্যমে তারা এইসব সিম্বল হর হামেশাই প্রচার করে যাচ্ছে। আল্লাহ আমাদের হেফাযত করুন!!

ইলুমিনাতির_পরিচয়ঃ

ইলুমিনাটি নামটার সাথে পরিচিত নয় এমন পাঠক পাওয়া যাবে না। যেখানেই আছে রহস্য কিংবা চক্রান্তের গন্ধ সেখানেই যেন ইলুমিনাতিকে খুঁজে পায় অনেকে। ষড়যন্ত্রতত্ত্ব আর ইলুমিনাতি যেন একই মুদ্রার দুটো পিঠ। ইলুমিনাতি ‘দ্য সিক্রেট সোসাইটি’ পুরো পৃথিবীর জন্য এক ভয়ঙ্কর ফিতনা। ইলুমিনাতি শব্দটি এসেছে ল্যাটিন শব্দ ‘ইলুমিনেতাস’ (illuminatus ) থেকে, যার অর্থ আলোকিত। ইলুমিনাতরা লুসিফার অর্থাৎ শয়তানকে আলোর দিশারি মনে করে।

ইলুমিনাতি হচ্ছে একটি ইয়াহুদি নিয়ন্ত্রিত গুপ্ত সংগঠনের নাম। যারা লুসিফার নামক শয়তানের পূজারী। আবার তারা একচোখ বিশিষ্ট দেবতাকে (দাজ্জাল) ঈশ্বর হিসেবে মানে। তারা তার আগমনকে তরান্বিত করতেই বিশ্বব্যাপী পাপ কাজকে ছড়িয়ে দিচ্ছে। বিভিন্ন কৌশলে তারা বলে থাকে, এই এক চোখ বিশিষ্ট ঈশ্বর পৃথিবীতে আগমন করে সারা বিশ্বব্যাপী তাদের একক রাজত্ব প্রতিষ্ঠিত করবেন। সে খুব অচিরেই আত্মপ্রকাশ করবে।

ইবরাহিম আলাইহিস সালাম-এর সময় থেকেই ধারাবাহিক নমরুদ, ফেরাউন আর এদের আপডেট ভার্সনই হচ্ছে আজকের এই ইলুমিনাতি। তারা বিশ্বাস করে, এই এক চোখ বিশিষ্ট ঈশ্বর বারমুডা ট্রায়াঙ্গেলে অবস্থান করে বিশ্বব্যাপী নজরদারি করছে। তাই তারা তাদের মূল প্রতীক হিসেবে ত্রিভুজ আকৃতি বা পিরামিডের মাথায় এক চোখ ব্যবহার করে। তার জলন্ত উদাহরণ হলো আমেরিকার এক ডলারের নোট।

ইলুমিনাতি হলো শয়তানের সাথে নিজের আত্মার বিনিময়ে করা চুক্তি যার ফলে সে এই জীবনে যা চায় চাই পায়, কিন্তু নির্দিষ্ট সময় পরে মৃত্যুবরন করে আর মৃত্যুর পর তার আত্মা শয়তানের অধিনে চলে যায়। এর সাথে জড়িয়ে আছে বিশ্বের সব থেকে নাম করা কোম্পানি আর সব থেকে নাম করা তারকারা। এরা একটি সিক্রেট গ্রুপের মাধ্যমে তাদের কার্যাবলী সম্পাদন করে। এই গ্রুপটিই illuminati নামে পরিচিত। এই গ্রুপটি তাদের প্রভুর (শয়তানের) নিকট হতে নির্দেশনা পান। যারা ইলমিনাতি করে তদের ধারনা সৃষ্টিকর্তা/আল্লাহ/গড/ঈশ্বর শয়তানকে জান্নাত থেকে বের করে শয়তান এর উপর যুলুম করেছেন (তাদের ভাষায় লুসিফার)। কাজেই শয়তানের পক্ষাবলম্বন করা উচিৎ। সব ধরনের শয়তানী কাজকে প্রোমোট করা উচিৎ এবং তারা এটাও মনে করে যে তারা যত শয়তানের পুজা করবে শয়তান তত শক্তিশালি হবে এবং সৃষ্টি করতার মতন শক্তিশালি হয়ে যাবে এবং সে সৃষ্টি কর্তার সাথে যুদ্ধ করবে (আল্লাহ মাফ করুক)।