খাদ্য ইচ্ছা-অনিচ্ছার ভিত্তিতে বাইয়োকেমিক চিকিৎসা

খাদ্য ইচ্ছা-অনিচ্ছার ভিত্তিতে গ্যাষ্টিকের বাইয়োকেমিক চিকিৎসা ♣ লবন খাওয়ার ইচ্ছার গ্যাষ্টিকের রোগীর বাইয়োকেমিক ঔষধ-নেট্রাম মিউর। ♣ মিষ্টি খাওয়ার ইচ্ছার গ্যাষ্টিকের রোগীর বাইয়োকেমিক ঔষধ-সাইলেসিয়া। ♣ মদ খাওয়ার ইচ্ছার গ্যাষ্টিকের রোগীর বাইয়োকেমিক ঔষধ-ফেরম ফস। ♣ লবনাক্ত শুকরে মাংশ খাওয়ার ইচ্ছার গ্যাষ্টিকের রোগীর বাইয়োকেমিক ঔষধ-ক্যালকেরিয়া ফস। ♣ তিক্ত লবনাক্ত খাওয়ার ইচ্ছার গ্যাষ্টিকের রোগীর বাইয়োকেমিক ঔষধ-ক্যালকেরিয়া ফস,নেট্রাম মিউর। ♣ …

হোমিওপ্যাথি ঔষধ ও ডায়াবেটিস চিকিৎসা এর সফল গবেষণা।

গবেষণা ও বাংলাদেশ : হোমিওপ্যাথি ঔষধ ও ডায়াবেটিস চিকিৎসা এর সফল গবেষণা। [Research of Bangladesh: Diabetes Treatment & Homoeopathy Medicine] গবেষণা চিকিৎসা বিজ্ঞানের চলমান প্রক্রিয়া। কিন্তু হোমিওপ্যাথিতে সেভাবে গবেষণা হচ্ছেনা। ফলে পিছিয়ে পড়ছে। তা কাম্য নয়। খাদ্যশস্যের মাধ্যমে বা খাদ্যে যে বিষ বা Poison ব্যবহার করা হচ্ছে এগুলো সকল জনগোষ্ঠী খাবার হিসাবে প্রতিনিয়ত খাচ্ছে। অনেক …

হোমিওপ্যাথি ঔষধ ক্রিয়াকাল ও সেবন বিধি তত্ত্ব

গবেষণা, বাংলাদেশ : হোমিওপ্যাথি ঔষধ ক্রিয়াকাল ও সেবন বিধি তত্ত্ব [Homoeopathy:Action & Duration] গবেষণা চিকিৎসা বিজ্ঞানের চলমান প্রক্রিয়া। কিন্তু হোমিওপ্যাথিতে সেভাবে বর্তমানে গবেষণা হচ্ছেনা। ফলে পিছিয়ে পড়ছে। তা কাম্য নয়। খাদ্যশস্যের মাধ্যমে বা খাদ্যে যে বিষ বা Poison ব্যবহার করা হচ্ছে এগুলো সকল জনগোষ্ঠী খাবার প্রতিনিয়ত হিসাবে খাচ্ছে। অনেক রাসায়নিক উপাদান, অনেক এ্যালোপ্যাথি ঔষধ মানুষের …

বিশ্বব্যাপি পরিবর্তনশীল জলবায়ু ও খাদ্যভ্যাস : মহাদেশ ভিত্তিক হোমিওপ্যাথি গবেষণার প্রয়োজন।

বিশ্বব্যাপি পরিবর্তনশীল জলবায়ু ও খাদ্যভ্যাস : মহাদেশ ভিত্তিক হোমিওপ্যাথি গবেষণার প্রয়োজন। প্রারম্ভিকঃ বিশ্বব্যাপি জলবায়ু ও আবহাওয়া পরিবর্তনশীল এবং বসবাসরত জনগোষ্ঠীর খাদ্যাভ্যাস বিভিন্ন মহাদেশে ভিন্ন ভিন্ন রকম। তার সঙ্গে ভিন্ন ভিন্ন অঞ্চলের জনগোষ্ঠীর জীবিকা ও পেশা জড়িত। এগুলো বিবেচনা না করে ইউরোপিয় মহাদেশে জলবায়ু, আবহাওয়া, জনগোষ্ঠীর খাদ্যাভ্যাস, পেশা-জীবিকা উপর ভিত্তি করে স্যার ডা. স্যামুয়েল হ্যানিম্যানের সময় …

নতুন পরিবেশে ঘুমের সমস্যা হয় কেন?

অনেককেই বলতে শোনা যায়, অপরিচিত জায়গায় নাকি ঘুম ভালো হয় না। কিন্তু কেন এমন হয় তা হয়তো অনেকেই জানেন না।  অপরিচিত জায়গায় ঘুমানোর সময় মস্তিষ্কের বাম দিক সম্ভাব্য বিপদের জন্য সতর্ক থাকে। তাই নাকি ভালো ঘুম হয় না। সম্প্রতি এক গবেষণায় এমন তথ্য পাওয়া গেছে। গবেষণায় দেখা গেছে, মস্তিষ্কের বাম দিক শব্দের প্রতি অধিক প্রতিক্রিয়াশীল …

শরীরে জিংকের অভাবে যে সমস্যা হয়

আমাদের শরীরের কার্যক্রম ঠিক রাখার জন্য জিংক অতি প্রয়োজনীয় একটি মিনারেল। শরীরে জিংকের অভাব হলে নানা ধরনের সমস্যা হয়। যেমন : একজিমা, র‍্যাশ ইত্যাদি। জিংক সাধারণত লাল মাংস, গম, ওট ইত্যাদি খাবারে বিদ্যমান থাকে। জিংকের অভাবে ডায়রিয়া বা নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়া ছাড়াও কনজাংকটিভার প্রদাহ, পায়ে বা জিহ্বায় ক্ষত, একজিমা, ব্রণ বা সোরিয়াসিস-জাতীয় ত্বকের প্রদাহ, ছত্রাকসহ …

রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা বেড়ে গেলে কী খাবেন, কী খাবেন না

বর্তমানে সঠিক খাদ্যাভ্যাস এবং অনিয়ন্ত্রিত জীবন যাপনের কারণে পুষ্টিবিদ হিসাবে প্রায়শই একটি প্রশ্নের সম্মুখীন হই। আর তা হলো, আমার রক্তে কোলেস্টেরল এর মাত্রা বেড়ে গেছে। আমি কি খাব? কিভাবে এই মাত্রা স্বাভাবিক হবে? সারাজীবন কি ওষুধ খাব? অথবা আমি কি আর ডিম বা মাংস বা ফ্যাট জাতীয় খাবার খেতে পারব না? আমি হেসে উত্তর দেই, …

এই মুরগীর মাংস খেলেই হবে ক্যান্সার !! নিজের পরিবারের জন্য সাবধান হোন!

‘ব্রয়লার’ মুরগীর মাংস খেলে হবে ক্যান্সার এতে কোন ভুল নেই এটি আমার কথা নয় বিশেষজ্ঞদের কথা। বিষাক্ত ক্রোমিয়াম- হেক্সাভোলেট ক্রোমিয়াম-৬ যা স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। ‘ইউএস এনভায়রোনমেন্ট প্রোটেকশন এজেন্সি ২৭শে ডিসেম্বর-২০১৪ তারিখে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলে- ক্রোমিয়াম-৬ একটি বিষাক্ত যৌগিক পদার্থ। যাকে সনাক্ত করা হয়েছে “হিউম্যান কার্সিলোজেন” হিসেবে অর্থাৎ ক্যান্সার সৃষ্টি করতে সক্ষম এই ক্রোমিয়াম-৬। …

এক কিডনির বদলে দুই কিডনি কেটে ফেলার অভিযোগ *ভিডিও সহ

কিডনির চিকিৎসা করাতে গিয়ে, মৃত্যু শয্যায় চিত্র পরিচালক রফিক শিকদারের মা। রোগী এখন আছেন ডিপ কোমায়। ছেলের অভিযোগ, বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে একটি কিডনি অপসারণ করা হলেও পরীক্ষা করে তারা জানতে পারে, তার মায়ের অন্য কিডনিটিও নেই। এ জন্য অভিযুক্ত চিকিৎসকের শাস্তি দাবি করেছেন তিনি। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। দু-তিন দিন আগের ছবি। …

এই ভয়ঙ্কর কাজটি নিয়মিত করছেন না তো? একটি সতর্কতা মূলক পোস্ট,

ভয়ঙ্কর এই কাজটি আপনি নিয়মিত করছেন না তো?লম্বা ভ্রমণে, সিনেমা দেখার মাঝখানে, মিটিং চলাকালীন বা নেহায়েত আলসেমি করেও অনেকে লম্বা সময় মুত্রত্যাগ করেন না। কাজটি আপাতত তেমন ক্ষতিকর মনে না হলেও একটা সময়ে এই অভ্যাস আপনার অনেক বড় ক্ষতি করতে পারে। মুত্রত্যাগ যথেষ্ট জরুরী একটা কাজ। আমাদের কিডনি শরীর থেকে অতিরিক্ত পানি এবং সেই সাথে …